ট্রাডিশনাল টক দই রেসিপি

ট্রাডিশনাল টক দই রেসিপি

টক দই অত্যন্ত উপকারী একটা খাবার। প্রচুর এন্টি অক্সিডেন্টে ভরপুর এই খাবারটি স্বাস্থ্যের জন্য খুবই ভাল। শুধু তাই নয়। আমাদের চুলের যত্ন আর ত্বকের সৌন্দর্য রক্ষায় টকদই অসাধারণ ভূমিকা রাখতে পারে। আর সকল রাধুনী মাত্রই জানেন যেকোন রান্নায় টক দই যোগ করলে সেই রান্নার স্বাদ ও গন্ধ বহুগুণে বেড়ে যায়। এজন্য যেকোন বাড়ির ফ্রিজেই এক বাটি টক দই থাকাটা স্বাস্থ্য, ত্বক আর চুল সব কিছুর জন্যই ভাল। আজ আমি ট্রাডিশনাল টক দই রেসিপি আপনাদের সাথে শেয়ার করব।

টক দই এর কিছু ব্যবহার চুলের যত্নে টকদই , ত্বকের যত্নে টকদই

এখন অনেকেই সহজ আর শর্টকাট পদ্ধতিতে টক দই জমিয়ে থাকেন। কেউ কেউ এক ঘন্টায় চুলায় টক দই পাতান। আবার কেউ কেউ পাঁচ মিনিটে মাইক্রো ওয়েভ ওভেনে টক দই জমান। কিন্তু আমরা অনেকেই জানি না যে এই ভাবে টক দই জমালে টক দই তার আসল কার্যকারিতাই হারিয়ে ফেলে। আপনি কি জানেন টক দই একটি প্রোবায়োটিক খাবার। এর মধ্যে থাকা গুড ব্যাকটেরিয়াগুলোই আমাদের স্বাস্থ্য, ত্বক আর চুলের যত্নে ভূমিকা রাখে। কিন্তু চুলার তাপে বা মাইক্রো ওয়েভ ওভেনের ওয়েভে এই গুড ব্যাকটেরিয়া গুলো মরে যায়। ফলে এভাবে বানানো টক দই আমাদের খুব একটা উপকারে আসে না। টক দই এর সম্পূর্ণ উপকারিতা পেতে গেলে আমাদেরকে একটা নির্দিষ্ট মৃদু তাপমাত্রায় লম্বা সময় নিয়ে টক দই জমতে দিতে হবে। এজন্য ঘরে টক দই জমাতে হলে সব সময় ট্রাডিশনার টক দই রেসিপি অনুসরণ করা উচিত।

ট্রাডিশনাল টকদই রেসিপি উপকরণ

  • দুধ ৩ কাপ
  • পুরোনো টক দই ২ চা চামচ
  • একটা মাটির পাত্র

ট্রাডিশনাল টকদই রেসিপি

দুধ জ্বাল দিয়ে একটু ঘন করে নিতে হবে। তিন কাপ দুধ ঘন করে দুই কাপ মানে হাফ লিটার করে নিতে হবে। এরপর আধা ঘন্টা অপেক্ষা করে দুধের তাপমাত্রা উষম গরম অবস্থায় নিয়ে আসতে হবে।

ট্রাডিশনাল টক দই রেসিপি ১
ট্রাডিশনাল টক দই রেসিপি ১

এবার পুরনো দই চামচ দিয়ে একটু ফেটে নিতে হবে।

ট্রাডিশনাল টক দই রেসিপি ২
ট্রাডিশনাল টক দই রেসিপি ২

যেই পাত্রে দই বসাবেন তাতে একটু দই নিয়ে হাত দিয়ে ভাল করে মেখে নিতে হবে।

ট্রাডিশনাল টক দই রেসিপি ৩
ট্রাডিশনাল টক দই রেসিপি ৩

বাকি দই দুধ এরসাথে ভাল করে মিশিয়ে নিবেন।

ট্রাডিশনাল টক দই রেসিপি ৪
ট্রাডিশনাল টক দই রেসিপি ৪

দই বসানোর পাত্রে এই দুধটা ঢেলে দিন।

ট্রাডিশনাল টক দই রেসিপি ৫
ট্রাডিশনাল টক দই রেসিপি ৫

এবার আসল কাজ। একটা বড় ঝুড়িতে একটা মোটা কাথা চার ভাজ করে বিছিয়ে দিন। এই কাথার মধ্যে দইয়ের পাত্রটা সাবধানে রাখুন।

ট্রাডিশনাল টক দই রেসিপি ৬
ট্রাডিশনাল টক দই রেসিপি ৬

এবার ছবির মত করে কাথাটি ভাজ করে দিন।

ট্রাডিশনাল টক দই রেসিপি ৭
ট্রাডিশনাল টক দই রেসিপি ৭

ঝুড়িটি ১০ থেকে ১২ ঘন্টা কোন স্থানে রেখে দিন যেমন খাটের তলা বা টেবিলের তলা। ১০ থেকে ১২ ঘন্টা পর দই জমে যাবে।

ট্রাডিশনাল টক দই রেসিপি ৮
ট্রাডিশনাল টক দই রেসিপি ৮

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *