শিশুদের মধ্যে ডায়াবেটিস ও প্রতিকার

শিশুদের মধ্যে ডায়াবেটিস ও প্রতিকার

নিয়ন্ত্রনহীন খাদ্যাভ্যাস আর সেই সাথে বেপরোয়া জীবনযাত্রা আমাদের চারপাশ থেকে ঘিরে ফেলেছে। সেই সাথে বয়ে নিয়ে এসেছে নানারকম রোগের যন্ত্রণা। ডায়াবেটিস আজ তাই কোন দূর্লভ রোগ নয়। আধুনিক এই যুগে পূর্ণবয়স্ক মানুষের মধ্যে ডায়াবেটিস খুব সাধারণ একটা রোগ যা কিনা যথেষ্ঠ চিন্তার বিষয়। কিন্তু যেই ব্যাপারটি বেশী ভয়ঙ্কর তা হচ্ছে আজকাল বাচ্চাদের মধ্যেও ডায়াবেটিস দেখা যাচ্ছে। আর দিন কে দিন এই সংখ্যাটা বেড়েই যাচ্ছে। নানা কারণে বাচ্চাদের মধ্যে ডায়াবেটিস হতে দেখা যায়। আমি আজ প্রধান কিছু কারণ, লক্ষণ আর প্রতিকার নিয়ে কথা বলব।

শিশুদের ডায়াবেটিস হবার কারণ

বাচ্চাদের মধ্যে বংশগত কারণে ডায়াবেটিসের ঝুকি বেড়ে যায়। বাবা অথবা মায়ের মধ্যে কোন একজনের যদি ডায়াবেটিস থাকে তাহলে সেই বাচ্চা ডায়াবেটিসের জন্য যথেষ্ঠ ঝুকিপূর্ণ। তাছাড়া আজকাল ফাস্টফুড অনেক বেশি সহজলভ্য। যেখানে বড় মানুষেরাই এসব লোভনীয় ফাস্টফুডের নেশার ফাদে পড়ে যায়, সেখানে বাচ্চারা তো এগুলো খেতে চাবেই। আর এসব খাবার খাওয়ানো সোজা আর দীর্ঘসময় পেট ভরা থাকে বলে মা বাবারা ঝামেলা এড়াতে প্রায়ই বাচ্চাদের এগুলো খাইয়ে দেন। কিন্তু দীর্ঘদিন ধরে এসব খাবার নিয়মিত খেতে থাকলে শিশুদের মধ্যে ডায়াবেটিসের ঝুকি বহুলাংশে বেড়ে যায়। তার উপর আজকাল বাচ্চাদের খেলার জায়গার প্রচুর অভাব। তাছাড়া পড়াশোনার চাপে তারা এখন খেলার সময়ও পায় না। ফলাফল প্রয়োজনীয় কায়িক পরিশ্রমের অভাব আর বর্ধমান ডায়াবেটিসের ঝুকি।

শিশুদের ডায়াবেটিসের লক্ষণ

কোন শিশুর মধ্যে ডায়াবেটিস দেখা দিলে বেশ কিছু লক্ষণ প্রকাশ পায়। এর মধ্যে প্রধান লক্ষণ হচ্ছে বাড়তে থাকা ক্লান্তিবোধ। আর এই অতিরিক্ত ক্লান্তির সাথে বাচ্চাদের মধ্যে ক্ষুদাও বেড়ে যায়। এছাড়াও বাচ্চাদের মধ্যে অতিরিক্ত পিপাসা দেখা যায়। সেই সাথে প্রসাবের পরিমাণও বেড়ে যায়। এছাড়া বাচ্চাদের গলার ভাজে ভাজে কালো ছোপ ছোপ দাগও দেখা যায়। সেই সাথে বাচ্চাদের ত্বকে চুলকানি আর ঘা হবার প্রবণতাও বেড়ে যায়। শুধু তাই নয়। ডায়াবেটিস শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমিয়ে দেয়। তাই এসব চুলকানি আর ক্ষত সারতেও স্বাভাবিক বাচ্চাদের চাইতে বেশি সময় নেয়।

শিশুদের ডায়াবেটিস সারানোর উপায়

ডায়াবেটিস এমন একটা রোগ যা পুরোপুরি নির্মুল করা কখনোই সম্ভব নয়। তবে জীবন যাপনে কিছুটা নিয়মানুবর্তিতা আনলে এই রোগ অনেকাংশে নিয়ন্ত্রণে রাখা সম্ভব। আপনার সন্তানকে সবসময় ঘরে বসিয়ে রাখবেন না। তাদেরকে যতটা সম্ভব খোলা জায়গায় খেলতে দিন। এছাড়াও ছো্ট থেকেই বাচ্চাদের ফল ও সবজির সাথে বন্ধুত্ব গড়ে তুলুন। তাদেরকে বুঝান সুস্থ্য থাকতে হলে স্বাস্থ্যকর খাবারের কোন বিকল্প নেই। বাচ্চাদের খাবারে কার্বোহাইড্রেট আর ফ্যাটের পরিমাণ কম রাখুন। সেই সাথে তাদের জন্য বাইরের খাবার একেবারেই নিষিদ্ধ করে দিন। জানি অনেক কঠিন একটা কাজ। কিন্তু অসম্ভব নয়। শিশুদেরকে একটা নির্দিষ্ট সময়ে খাওয়া, ঘুম আর খেলার অভ্যাস করতে হবে। তাদেরকে যদি ছোট বয়স থেকেই ডিসিপ্লিনড লাইফস্টাইলে আনা যায় তবে পরবর্তীতে ডায়াবেটিস তাদেরকে আর ঘায়েল করতে পারবেনা।

ছবি- রিওয়ার্ডমি.কম

One Comment on “শিশুদের মধ্যে ডায়াবেটিস ও প্রতিকার”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *